টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী (১২ অক্টোবর) পালন করতে প্রায় এক কোটি টাকার বাজেট দিয়েছে শাখা ছাত্রলীগ।
গত ২২ সেপ্টেম্বর ভাইস চ্যান্সেলর ও প্রক্টরের কাছে ৬৮ লাখ ৭৬ হাজার টাকার বাজেট দেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান।
কোন খাতে কত টাকা
প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনের বাজেটে কনসার্ট ও স্টেজ বাবদ ৩৮ লাখ, আল্পনা বাবদ ৬ লাখ, আলোক সজ্জা ও সৌন্দর্য্য বর্ধণে ১২ লাখ টাকার খরচ দাবি করা হয়েছে।
এছাড়া, ১০০ পাউন্ডের কেকের দাম ২৫ হাজার টাকা, আনন্দ র‌্যালি ও পুস্পস্তবক অর্পণে-ব্যান্ড পার্টি বাবদ ১০ হাজার টাকা, টমটম ঘোড়ার গাড়ি বাবদ ২০ হাজার টাকা, ভুভুজেলা বাবদ ১০ হাজার টাকা ও হাতের ব্যাজ বাবদ ১ হাজার টাকা, ২ হাজার শিক্ষার্থীর টি-শার্ট জন প্রতি ৩শ করে ৬ লাখ টাকা, ক্যাপ ২ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য জনপ্রতি ৭০ টাকা দরে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা, আলোকসজ্জা ৫টি হল, একাডেমিক ভবন, গুরুত্বপূর্ণ স্থান সমূহ, ফানুষ ও আতশবাজির জন্য ৫ লাখ, ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য্য বর্ধনে পুকুর, নৌকা, গাছ, ৩০টি ডাস্টবিন ও ৩০টি ফেস্টুন বাবদ ৭ লাখ, আবাসিক হল সমূহের ফিস্ট মিল বাবদ মাথাপিছু ৩শ করে, বঙ্গবন্ধু ও ক্যাম্পাসের উপর আলোকচিত্র প্রর্দশনীতে ৩০০টি ছবি প্রদর্শন ও ফ্রেম বাবদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, আল্পনা ১ম গেট থেকে জিয়া হল পর্যন্ত ৬ লাখ, আলোচনা সভায় ব্যানার ও ক্রেস্ট বাবদ ৭০ হাজার, জেমস এর কনসার্ট ও স্টেজ সাউন্ড সিস্টেমে ২০ লাখ এবং শিল্পী সালমা, লিজা ও সাউন্ড সিস্টেমে ৮ লাখ, স্টেজ সাজানো বাবদ ১০ লাখ, স্বেচ্ছাসেবক খরচ ১ লাখসহ অন্যান্য খরচ ৫০ হাজার টাকা।
বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যা বলছে
বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বাজেট জমা দেয়ার কথা স্বীকার করে প্রক্টর ড. সিরাজুল ইসলাম পরিবর্তন ডটকমকে জানান, প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে গত ২২ সেপ্টেম্বর ভাইস চ্যান্সেলর ও প্রক্টরের কাছে মোট ৬৮ লাখ ৭৬ হাজার টাকার বাজেট দেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান।
ড. সিরাজুল ইসলাম আরো জানান, ছাত্রলীগের দেয়া বাজেটটি অযৌক্তিক হওয়ায় কর্তৃপক্ষ অনুমতি দেয়নি।
তিনি আরো জানান, দেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ই প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন বাবদ এত টাকার বাজেট দেয়নি। এর আগে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনে যে ৫ থেকে ৭  লাখ ব্যয় হয়েছে তার পরিবর্তে সর্বোচ্চ ১ অথবা ২ লাখ টাকা বেশি দিতে কর্তৃপক্ষ সম্মতি দিয়েছে।
উল্টো সুর ছাত্রলীগের
এ ব্যাপারে ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সজীব তালুকদার জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কোনো বাজেট দেয়া হয়নি। তবে যে বাজেটটির কথা প্রকাশ পেয়েছে, সেটি ছিল সাধারণ শিক্ষার্থীদের।
তিনি দাবি করেন, শুধুমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের দাবি অনুসারে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রেও কর্তৃপক্ষকে ছাত্রলীগ থেকে কোনো প্রেসার দেয়া হয়নি।
সূত্র: পরিবর্তন
             

News Page Below Ad