মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর থেকে সিঙ্গাপুরের মধ্যকার রুটটি পৃথিবীর সবচেয়ে ব্যস্ত আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের রুট। সম্প্রতি এক গবেষণায় এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।
ওএজি এভিয়েশন নামের একটি সংস্থা বলছে, কুয়ালালামপুর-সিঙ্গাপুর রুটে ২০১৭ সালের প্রথম দিক থেকে শুরু করে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত ৩০ হাজার ৫৩৭ ফ্লাইট চলাচল করেছে। অর্থাৎ প্রতিদিন ৮৪টি ফ্লাইট যাতায়াত করছে এ রুটে।



সংস্থাটির জরিপে এর আগে সবচেয়ে ব্যস্ত বিমান চলাচলের রুট ছিল হংকং থেকে তাইওয়ানের রাজধানী তাইপে।

বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিঙ্গাপুর থেকে কুয়ালালামপুরে বিমানে যাতায়াত করতে এক ঘণ্টা সময় লাগে। দুটি স্থানের মধ্যে অতিদ্রুত গতির ট্রেন লাইন স্থাপনের পরিকল্পনাও আছে।

এ ছাড়া দুই দেশের পতাকাবাহী সিঙ্গাপুর এবং মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সও এ রুটে চলাচল করে।

ওএজির রিপোর্ট অনুযায়ী বিশ্বের দ্বিতীয় ব্যস্ততম বিমান রুট হচ্ছে নিউইয়র্কের লা-গুরদিয়া বিমানবন্দর থেকে কানাডার টরন্টোর পিয়ারসন বিমানবন্দর। এ রুটে গত ১৪ মাসে প্রায় ১৭ হাজার বিমান চলাচল করেছে।
যদি যাত্রী পরিবহনের হিসাবে বিবেচনা করা হয়, তাহলে সবচেয়ে বেশি যাত্রী চলাচল করেছে হংকং এবং তাইওয়ান রুটে।

উল্লিখিত সময়ের মধ্যে ৬৫ লাখ যাত্রী চলাচল করেছে এ রুটে। যাত্রী পরিবহনের বিবেচনার দ্বিতীয় ব্যস্ততম বিমান রুট হচ্ছে, সিঙ্গাপুর থেকে জাকার্তা।

এ রুটে ৪৭ লাখ যাত্রী চলাচল করেছে। এর পরের অবস্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর- কুয়ালালামপুর রুট। এ রুটে যাত্রী পরিবহন করা হয়েছে ৪০ লাখ। অভ্যন্তরীণ রুটে সবচেয়ে বেশি ফ্লাইট চলাচল করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার সিউল থেকে জেজু দ্বীপে।

এ রুটে ২০১৭ সালে ৬৫ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করা হয়েছে। অর্থাৎ প্রতিদিন ১৮০টি বিমান চলাচল করেছে এই রুটে। জেজু দ্বীপ দক্ষিণ কোরিয়ার একটি জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র।

News Page Below Ad