আমাদের প্রতিদিনের কাজ অনেকটাই সহজ করে দেয় মা’ইক্রোওয়েভ ও’ভেন।নানা রকম খাবার তৈরির পাশাপাশি এটি খাবার গ’রম করার কাজে সবচেয়ে বেশি ব্য’বহৃত হয়।যতটুকু খাবার গ’রম করা দরকার ততটুকু নিয়ে গ’রম করলেই কাজ শেষ।সহজ ব্যবহারের জন্যই মা’ইক্রোওয়েভ ওভেন জনপ্রিয়।
মাইক্রোওয়েভ ফ্রি’কুয়েন্সি রে’ঞ্জের মাধ্যমে ই’লেকট্রোম্যাগ’নেটিক রে’ডিয়েশন ছড়িয়ে খাবার গরম করা বা রান্না করার কাজ করে এই মেশিন।’ তবে ’পে’শাদা’র কুকদের মতে, মা’ইক্রোওয়েভে রান্নায় তার আ’সল ফ্লে’ভার পাওয়া যায় না।তবে স্বাদ ছাড়াও মাইক্রোওয়েভের আরও দিকটি নিয়ে বিশে’ষজ্ঞরা চিন্তিত,তা হলো স্বা’স্থ্যগত দিক।নি’য়মিতভাবে মাই’ক্রোওয়েভে গ’রম করা খাবার খেলে স্বাস্থ্যের কি ক্ষ’তি হয় কী বলছেন বি’শেষজ্ঞরা সেকথাই জানিয়েছে ই’ন্ডিয়ান টাইমস।

মা’ইক্রোওয়েভে বেশি সময় ধরে খাবার গ’রম করলে খাবারের পু’ষ্টিগুণ ন’ষ্ট হয়ে যেতে পারে,ন/ষ্ট হয়ে যেতে পারে খাবারের ভিটা’মিন বি১২।

মাইক্রোও’য়েভে খাবার গরম করার ক্ষেত্রে অনেকেই প্লা’স্টিকের বাটি ব্যবহার করে থাকেন।মা’ইক্রোওয়েভ ওভেনের ভেতরে প্লাস্টিকে’র পাত্র দেয়া উচিত নয়।প্লা’স্টিকের মধ্যে থাকে প্যাথা’লেটস নামে এক ধরনের রা’সায়নিক।মা’ইক্রোওয়েভের গ’রমে এটি খাবারের স’ঙ্গে মিশে যায়।এই রা’সায়নিক শ’রীরে প্রবেশ করলে হ’রমোনের সমস্যা,ই’নসুলিন রে’সিসট্যান্স,ব’ন্ধ্যাত্ব, অ্যাজ’মার মতো নানা স’মস্যা দেখা দিতে পারে।মা’ইক্রোওয়েভে খাবার গ’রম করলে কাঁ’চ বা সিরামিকের বাটি ব্যবহার করুন।

মাই’ক্রোওয়েভে খাবার গ’রম করার সময় সব জায়গায় সমানভাবে তাপ পৌঁছায় না। তাই তাপের কারণে যেসব ব্যাক’টেরিয়া মরে যায়, সেগুলো খাবারের সব জায়গা থেকে পুরোপুরি নি’র্মূল হয় না। এসব ব্যাকটেরি’য়া শরীরে প্রবেশ করে নানা রকম স’মস্যা সৃষ্টি করতে পারে।

মাইক্রোওয়েভে গরম করা খাবারে রেডি’য়েশন থাকতে পারে বলে অনেকে যে মনে করেন, সেটি সঠিক নয় বলে জানিয়েছে বি’শ্বস্বাস্থ্য সংস্থা। মাইক্রোওয়েভের রেডি’য়েশন সুইচ অফ করার সঙ্গে সঙ্গেই ব’ন্ধ হয়ে যায়।তাই মাইক্রোওয়েভে গরম করা খাবার আপনি খেতেই পারেন। শুধু সঠিক পাত্র বেছে নিন।

News Page Below Ad