রাজধানীর অদূরে আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুরের তাজরীন ফ্যাশনসে ভয়া/বহ অ/গ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দায়ে/র করা মাম/লাটির আট বছরেও কোনো কূলকি/না/রা হয়নি। আ/লোচি/ত মাম/লা/টির সাক্ষীদের বি/রু/দ্ধে আ/দা/লতের জা/মি/ন অ/যো/গ্য গ্রেফ//তারি /প/রো/য়ানা জা/রি রয়েছে। এরপরও তাদের আ/দা/ল/তে উ/প/স্থিত করা যাচ্ছে না।
অ/গ্নি/কা/ণ্ডে আ/হ/ত শ্রমিকরা বলছেন, মা/ম/লার বিষয়ে তাদের কেউ কিছু জানায় না। সা/ক্ষ্য দিতে ডাকা হয় না। ডাকলে অবশ্যই সা/ক্ষ্য দিতে যেতাম। অন্যদিকে আসামিপ//ক্ষের আইন/জী/বীরা বলছেন, রাষ্ট্রপক্ষ সা/ক্ষীদের আদা/ল/তে উ/প/স্থিত করছেন না। সা/ক্ষী আদা/ল/তে উ/পস্থিত না হওয়ায় মাম/লাটির বিচার কার্য/ক্র/ম দী/র্ঘ/দিন ধরে ঝুলে আছে।



ঢাকার আশুলিয়ায় তাজরীন ফ্যাশনসে অ/গ্নি/কাণ্ডে/র অষ্টম বার্ষিকী মঙ্গলবার। ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর তাজরীন ফ্যাশনসে /আগু/ন লেগে ১১২ জন শ্র/মিক নি/হত হন। আ/হত হন অন্তত ২০০ শ্রমিক। নি/হত শ্র/মি/কদের অনেকেরই প/রি/চয় নিশ্চিত হতে না পেরে তাদের ম/র/দেহ অজ্ঞা/ত/নামা হিসেবে জুরাইন কব/র/স্থানে দা/ফ/ন করা হয়। পরবর্তী সময়ে ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে অনেকের ম/র/দেহ শ/না/ক্ত করে তাদের স্ব/জ/নদের কাছে হ/স্তা/ন্তর করা হয়।

আ/লো/চিত ওই ঘটনায় দা/য়ের করা মাম/লার বিচার/কা/জ চলছে ঢাকার প্রথম অতি/রিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আ/দা/লতে। মাম/লা/টির বি/চা/রকাজ শুরু হওয়ার পর পাঁচ বছর পার হয়েছে। পাঁচ বছরে ১০৪ সা/ক্ষী/র মধ্যে সাক্ষ্য দিয়েছেন মাত্র আট/জন। রা/ষ্ট্র/পক্ষ দা/বি করছে, সা/ক্ষী/দের বর্তমান ঠিকানায় অধি/কাং/শকে খুঁ/জে পাওয়া যাচ্ছে না। যেসব সাক্ষীর স্থায়ী ঠিকানা দেয়া হয়েছে তারা সঠিকভাবে আ/দা/লতের সমন পাচ্ছেন না।

News Page Below Ad