বগুড়ার শাজাহানপুরে শাশুড়ি ও পুত্রবধূর পারিবারিক দ্বন্দ্বে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন দিয়ে পুলিশ ডেকে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।
বুধবার সকালে উপজেলার মাদলা হেলেঞ্চাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শাজাহানপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহজাহান আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সেখানে পারিবারিক ঝামেলা থেকে বউ-শাশুড়ির মধ্যে শুধু বাগ্‌বিতণ্ডা হয়েছে, তবে জাতীয় জরুরি সেবায় সাহায্য চাওয়ার মতো কিছু হয়নি।

একটি নম্বর থেকে পুত্রবধূ লাবণী আক্তার (২৭) ৯৯৯-এ ফোন দিয়ে অভিযোগ করেন, তার শাশুড়ি শাহেরা বেগম তাকে মারধর করেছেন। কিন্তু, তাদের বাড়িতে পুলিশ গিয়ে দেখে মারধরের কোনো ঘটনাই ঘটেনি। তবে পারিবারিক ঝামেলা হয়েছিল শাশুড়ি ও পুত্রবধূর মধ্যে।

এসআই শাহজাহান আলী বলেন, সকালে পুত্রবধূ লাবণী ৯৯৯-এ ফোন দিয়ে তার শাশুড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। সকাল পৌনে ৮টার দিকে তাদের বাড়িতে ফোর্সসহ যাওয়া হয়। গিয়ে দেখা যায় তার শাশুড়ি শাহেরা বেগম তাকে কোনো মারধরই করেননি।

লাবণী আক্তারের স্বামী মো. শাহীন সেসময় পুলিশকে জানান, তার স্ত্রী লাবণী ও তার মা শাহেরা বেগমের মধ্যে প্রায়ই পারিবারিক ঝামেলা হয়। বউয়ের পক্ষে কথা বললে মা ক্ষিপ্ত হন। অপরদিকে, মায়ের পক্ষে কথা বললে বউ ক্ষিপ্ত হয়। এ নিয়ে তিনি খুব বিপদে রয়েছেন।

News Page Below Ad